33692
page-template/template_concern_page.php

0
page-template/template_concern_page.php

তিল কেন হয় ও কি করে দূর করতে হয় জানুন।

Highlights

  • ● তিল, যাকে চিকিৎসাবিজ্ঞানের ভাষায় বলে নেভাই (Nevi), অনেকের মধ্যেই দেখা যায়; দেহের যে কোনো জায়গায় ত্বকে ছোট বিন্দুর মতো।
  • ● অধিকাংশ মানুষের সারা জীবনে ৫০ বছর বয়স অবধি ১০-৪০টি তিল দেখা যায়।
  • ● কদাচিৎ কিছু তিল ক্যান্সারের দিকে এগোতে পারে, তখন সেগুলি সরানো বাধ্যতামূলক।
  • ● একটি তিলের চেহারায় কোনো পরিবর্তন যেমন চুলকানি, হঠাৎ আকারে বেড়ে যাওয়া ইত্যাদি লক্ষ্য রাখবেন। এক্ষেত্রে একজন চর্মবিশেষজ্ঞকে দিয়ে পরীক্ষা করানো প্রয়োজন যাতে কোনো ক্যান্সার হলে ধরা যায়।

ত্বকের তিল কি?

তিল বা মেলানোসাইটিক নেভাস (melanocytic nevus) এক ধরণের ত্বকের বৃদ্ধি যা অনেকজনের মধ্যে পাওয়া যায় এবং এর কারণ হল এক গুচ্ছ পিগমেন্টেড (pigmented) কোষের সমষ্টি। তিল ত্বকের সমতল হতে পারে বা উঁচু হয়ে থাকতে পারে এবং গোলাকার বা ডিম্বাকৃতি হতে পারে। সাধারণতঃ তিল একটি বাদামি বিন্দু হিসেবে দেখা যায়। নাহলে তিলের রং অনেকরকম হতে পারে যেমন কালো, হলদে-বাদামি, লাল, নীল, গোলাপি বা ত্বকের রঙের। কিছু তিল থেকে চুল গজাতে পারে।

তিল দেহের যে কোনো জায়গায় দেখা যায় যেরকম মুখ, গলা, ঘাড়, মাথা, বগল, যৌনাঙ্গে এমনকি নখের তলায়ও। একক ভাবে থাকতে পারে বা অনেকগুলি একসাথে দল বেঁধে থাকতে পারে। জন্মের সময় থাকা তিলগুলি আকারে বড় হয়।

তিলের প্রকারভেদ ও শ্রেণীবিন্যাস

আমরা তিলকে তিনটি মূল শ্রেণীতে বিভক্ত করতে পারি, তাদের চেহারা, শুরু হওয়া ও অগ্রসর হওয়ার উপর নির্ভর করে-

  • জন্মগত তিল- কনজেনিটাল নেভাই (congenital nevi) নামেও ডাকা এই তিলগুলি জন্মের সময় থেকে দেখা যায়। এগুলি সাধারণতঃ ১০০ জনের মধ্যে এক জনের হয়। এই তিল ক্যান্সারে পরিণত হবে কি না তার সম্ভাবনা এর মাপের উপর অনেকটা নির্ভর করে।
  • পরে হওয়া তিল (acquired)- এগুলি হল সেই তিলগুলি যা ছোটবেলার প্রথমদিকে বা প্রাপ্তবয়স্ক হওয়ার পরে দেখা যায়। বেশি সূর্যালোক লাগলে এগুলি আকারে বেড়ে যেতে পারে। এগুলি কদাচিৎ ত্বকের ক্যান্সারে রূপান্তরিত হতে পারে।
  • অস্বাভাবিক বা অনিয়মিত তিল(atypical/irregular)- এদের ডিসপ্লাস্টিক নেভাই (dysplastic nevi) বলেও ডাকা হয়; এগুলি বড়, অনিয়মিত আকৃতি ও মাপের এবং মধ্যিখানটা গাঢ় বাদামি রঙের। এই দাগগুলি বংশগত এবং ক্যান্সারে পরিবর্তিত হওয়ার ঝুঁকি এতে বেশি থাকে।
  • ক্যান্সারে রূপান্তরিত তিল বা মেলানোমা (melanoma)- এগুলি অনেকটাই অনিয়মিত ও অসমাঙ্গ আকারের তিল যা সময়ের সাথে প্রায়ই ত্বকের ক্যান্সার বা মেলানোমায় রূপান্তরিত হয়ে যেতে পারে।

তিল হওয়ার কারণ কি?

তিল হওয়ার কয়েকটি কারণ হল:

১. জেনেটিক্স (genetics)- আমাদের মা বাবার থেকে পাওয়া জিনগুলি আমাদের দেহে অবস্থিত তিলের উপস্থিতি, বিন্যাস ও সংখ্যা ঠিক করে। জাতি দিয়েও তিলের জন্মগত উপস্থিতি কিছুটা ঠিক হয়; যেমন ফর্সা ত্বকের অধিকারীদের অন্যদের থেকে বেশি তিল হয়। জেনেটিক মিউটেশনও (genetic mutation) তিল সৃষ্টি হওয়ার জন্য দায়ী, ২০১৫-র একটি গবেষণাপত্রে এমনটাই দাবি করা হয়েছে। জন্মগত নির্দোষ তিলের মধ্যে ৭৮%-এ বিআরএএফ (BRAF) জিনের মিউটেশন পাওয়া গেছে।

২. সূর্যালোকের প্রভাব- সূর্যালোকের প্রভাবে শৈশবে ও কৈশোরে তিলের সংখ্যা বৃদ্ধি পেতে পারে। অতিরিক্ত রোদ লাগলে তিলগুলি আরও গাঢ় হয়ে উঠতে পারে।

৩. হরমোনের (hormone) তারতম্য- বয়ঃসন্ধি বা গর্ভধারণের সময় হরমোনের পরিবর্তনের ফলে তিল তৈরি হতে পারে। দেহে হরমোন কম বেশি হলে তিল আকারে বড় বা রঙে গাঢ় হয়ে যেতে পারে।

হঠাৎ করে তিল কেন দেখা যায়?

তিল সাধারণতঃ ত্বকের রঙের চেয়ে গাঢ় হয় ও বেশি রোদ লাগলে আরও স্পষ্ট হয়ে ওঠে। তিল তৈরি হয় যখন মেলানোসাইট (melanocyte) নামে ত্বককোষগুলি ত্বকে সমানভাবে ছড়িয়ে পড়ার বদলে এক জায়গায় গুচ্ছ হয়ে বাড়তে থাকে। মেলানোসাইট কোষ, যা “মেলানিন” পিগমেন্ট (“melanin” pigment) তৈরি করে, আমাদের ত্বকের স্বাভাবিক রঙের জন্য দায়ী।

সাধারণ তিল সেভাবে মেলানোমায় পরিবর্তিত হয়না। কিছু ডিসপ্লাস্টিক নেভাই মেলানোমায় রূপান্তরিত হতে পারে বিশেষতঃ যদি তাদের রং, আকৃতি, মাপ বা অনুভূতিতে কোনো লক্ষণীয় পরিবর্তন হয়। যেহেতু মেলানোমা দেহে নতুন একটি রঙ্গীন স্থান হিসেবেও দেখা যেতে পারে, দেহে নতুন তিলের জন্য লক্ষ্য রাখা দরকার।

হঠাৎ করে আসা তিল চিহ্নিত করা (diagnosis):

অনিয়মিত বা অস্বাভাবিক তিল দেহের যে কোনো অংশে দেখা দিতে পারে এবং এতে মেলানোমার ঝুঁকি থাকতে পারে। চর্মবিশেষজ্ঞ একবার পরীক্ষার মাধ্যমে প্রাথমিক ত্বক বিশ্লেষণ করবেন। তিনি তারপর আপনার পরিবারে কারুর অনিয়মিত বা পরিবর্তনশীল তিলের ইতিহাস আছে কিনা বিশ্লেষণ করবেন যাতে রোগের কারণ খতিয়ে দেখে উপযুক্ত চিকিৎসার পরামর্শ দেওয়া যায়। তিনি মেলানোমা কিনা দেখার জন্য বায়োপসির উপদেশ দিতে পারেন।

আপনার কি মেলানোমা হওয়ার ঝুঁকি আছে?

আপনি যদি একটি গ্রীষ্মপ্রধান দেশে থাকেন এবং আপনার ত্বকে অতিরিক্তি ইউভি (UV) রশ্মি নিয়মিত লাগে, তবে আপনার তিল থেকে মেলানোমা হওয়ার কিছুটা ঝুঁকি রয়েছে। একটু হালকা রঙের ত্বকের অধিকারীদের অনিয়মিত তিল হওয়ার প্রবণতা থাকে। একজন মহিলার পায়ের নিচের ভাগে বা পায়ের গোছে কোনো নতুন তিল হলে বা পুরোনো তিলের কোনো পরিবর্তন হলে তখনই ডাক্তার দেখানো উচিত। পরিবারে মেলানোমার ইতিহাস থাকলে বা দেহে ৫০টির বেশি তিল থাকলে ত্বকের ক্যান্সারের ঝুঁকি বেড়ে যায়।

 

মেলানোমা জন্য লক্ষ্য রাখার কিছু টিপস (tips):

এই পরিবর্তনগুলির কোনোটা তিলে হলে মেলানোমার ঝুঁকি লক্ষ্য করা যেতে পারে:

১. রং, আকৃতি, মসৃণতা বা উচ্চতায় কোনো পরিবর্তন

২. কোনো তিল যা অনিয়মিত ভাবে বাড়ছে

৩. কোনো তিল যা শক্ত হয়ে উঠছে

৪. কোনো সংশ্লিষ্ট শুষ্কতা বা খোসা ওঠা

৫. কোনো সংশ্লিষ্ট চুলকানি

৬. কোনো দৃশ্যমান রস/রক্ত পড়া

তিল হওয়া প্রতিরোধ ও নিয়ন্ত্রণ:

যেহেতু আমরা নিজেদের জিন পাল্টাতে পারিনা, তাই সব ধরণের তিল প্রতিরোধ করা সম্ভব না। নিম্নলিখিত সহজ উপদেশগুলি মেনে চললে তিল নিয়ন্ত্রণ করা কিছুটা সম্ভব-

১. সূর্যালোক থেকে সুরক্ষা- রোদ থেকে নিজেকে বাঁচিয়ে রাখা প্রয়োজন, বিশেষতঃ সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৪টের মধ্যে যখন সূর্যের তেজ সবচেয়ে বেশি হয়। এছাড়া বাইরে বেরোনোর আগে সানস্ক্রিন (sunscreen) ব্যবহার করার অভ্যাস করুন। ঘরের ভেতর থাকুন বা রোদ আটকায় এমন জামাকাপড় পরুন যেমন প্যান্ট বা লম্বা হাতা জামা ইত্যাদি। একটি চওড়া-কানাওয়ালা (wide-brimmed) টুপি এবং রোদচশমা পরুন যাতে ইউভি রশ্মির ক্ষতিকর প্রভাব থেকে সাবধান থাকা যায়।

২. পরিবর্তন লক্ষ্য রাখুন- নিয়মিত নিজের ত্বক পরীক্ষা করুন যাতে পুরোনো তিলের রং বা আকৃতির পরিবর্তন বা মেলানোমার কোনো ইঙ্গিত লক্ষ্য করতে পারেন, বিশেষতঃ যদি পরিবারে থেকে থাকে। আপনার চর্মবিশেষজ্ঞর সাথে নিয়মিত পরীক্ষার জন্য দেখা করুন।

৩. ট্যানিং ল্যাম্প (tanning lamp) ব্যবহার করবেন না- ট্যানিং ল্যাম্প থেকে ইউভি রশ্মি বেরোয় এবং এতে ত্বকের ক্যান্সারের ঝুঁকি বেড়ে যায়। তাই এগুলির ব্যবহার এড়িয়ে চলুন।

 

তিলের ঘরোয়া সমাধান:

অধিকাংশ তিলই নির্দোষ হয়, কিন্তু মেলানোমা হতে পারে এমন তিলের ঘরোয়া সমাধান সম্ভব না। চিকিৎসাবিজ্ঞানের সাহায্য নিন ও সঠিক চিকিৎসা করান।

চিকিৎসা বিকল্প:

আমরা তিল দূর করার এই চিকিৎসাগুলি করে থাকি।

  • লেজার (laser) চিকিৎসা
  • লাগানোর (topical) ওষুধ
  • পাঞ্চ এক্সিশন (punch excision)

 

আরোগ্যসম্ভাবনা (prognosis):

ত্বকের ক্যান্সার বা মেলানোমা সাধারণ তিলের মত দেখতে হলেও খুবই চিন্তার বিষয়। অতএব, মেলানোমা তাড়াতাড়ি শনাক্তকরণের জন্য, তিলের কোনো পরিবর্তন লক্ষ্য করলেই চর্মবিশেষজ্ঞর পরামর্শ নিন। ছোট তিল দূর করা বড় তিলের তুলনায় অপেক্ষাকৃত সহজ এবং ক্ষতচিহ্ন থাকার সুযোগও কম।

Want a callback?Please fill this form


Subscribe to Newsletter

Expert guide to flawless skin and nourished hair from our dermatologists!